জঙ্গী হামলা, ক্রসফায়ারের স্ক্রিপ্ট ও সাক্ষী গোপালের অবসান কবে হবে?

জঙ্গী হামলা, ক্রসফায়ারের স্ক্রিপ্ট ও সাক্ষী গোপালের অবসান কবে হবে?
দেশের সাম্প্রতিক কয়েকটি ঘটনা (গুলশান ও শোলাকিয়া) সমগ্র দেশবাসীকে ভাবিয়ে তুলেছে। আমরা শোকাহত, স্তম্ভিত ও বাকরুদ্ধ। সর্বসাধারণ উৎকন্ঠিত ও আতঙ্কিত। নজিরবিহীন এসব ঘটনায় রক্ত ঝরেছে সাধারণ মানুষের, সাথে আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরও। ঘটনার সাথে কারা জড়িত এর কোন সঠিক হদিস না মিললেও সারাদেশে এসবের নেপথ্যে সরকারের তরফ থেকে বিরোধীদল বা জঙ্গি গোষ্ঠী জড়িত বলে প্রচার করা ...

চোখের সামনে আগামীর প্রজন্ম অসভ্য ও বর্বর হতে দেয়া যায় না

ধর্ম-টর্ম মানিনা মাদ্রাসা-টাদ্রাসা বন্ধ করে দাও ঘর-সংসার মানিনা লিভ টুগেদার চালু চাই সমকামী বিয়ের বৈধতা চাই ইসলামী রাজনীতি বন্ধ চাই নারী-পুরুষের অবাধ মেলামেশা চাই “মুক্তমনা” চালু চাই উপরোক্ত “শ্লোগান” গুলো কথিত মুক্তমনাদের নিয়মিত বক্তব্য- বিবৃতি, লেখনীতে শ্লোগানে পরিণত হয়েছে। তসলিম নাসরিন, সালমান রুশদী, লতিফ সিদ্দিকী ও তার দোসররা মানুষের জীবন প্রকৃতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে হীন নিচু ...

পলাশী ট্রাজেডী- বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস ছাপিয়ে স্বাধীনতার চেতনা, দেশপ্রেম, আত্মত্যাগ এবং বীরত্বে ভাস্বর

১৭৫৭ সালের ২৩ শে জুন, বাংলার ইতিহাসে এক কালো দিন, এদিন সংঘটিত হয়েছিল পলাশীর যুদ্ধ । বাংলা বিহার উড়িষ্যার শেষ স্বাধীন নবার সিরাজউদ্দৌলা ও রবার্ট ক্লাইভের নেতৃত্বাধীন ইংরেজ বেনিয়া দলের মাঝে পশ্চিম বঙ্গের নদীয়া জেলার ভাগীরথী নদীর তীরে পলাশীর প্রান্তরের আম্রকাননে এ যুদ্ধ সংঘটিত হয়। যুদ্ধে জীবনের শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে বাংলার স্বাধীনতা রক্ষার জন্য ...

দেশটা মীরজাফরদের কবলে….

দেশটা মীরজাফরদের কবলে…. ইতিহাসের মীরজাফর ক্ষমতান্ধে হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছিল…..। নিজের জাত ভাই ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছিল! কোন ভাবে তাকে নিবৃত করা যায়নি…। যে ষড়যন্ত্র দেশের মহাবিপর্যয় ডেকে এনেছিল। পরবর্তীতে তার পরিনতি হয়েছিল চরম শোচনীয়। এ’কুল ও’কুল দু’কুল হারিয়েছিল মীরজাফর…..। স্বাধীনতার ৪৩ বছর পরও আজ ভাবতে অবাক লাগে দেশে এখনও অনেক মীরজাফর। লোভে তারা ...